ঢাকা, বাংলাদেশ | ১২ আগস্ট ২০২০, বুধবার

সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকা মূলধন হারিয়েছে ডিএসই

অর্থবার্তা ডেস্ক

| প্রকাশিত হয়েছে: February ১৫, ২০১৯: ১৬ টা ১২ মিনিটে

 

গত সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তিন কার্যদিবসেই দরপতন হয়েছে দেশের শেয়ারবাজারে। এতে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন কমেছে প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকা। পাশাপাশি কমেছে মূল্যসূচক ও লেনদেনের পরিমাণ।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স কমেছে প্রায় এক শতাংশ। আর লেনদেন কমেছে এক শতাংশেরও বেশি। সেই সঙ্গে লেনদেনে অংশ নেয়া অর্ধেকেরও বেশি (৫১ শতাংশ) প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে।

এতে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন নেমে এসছে ৪ লাখ ১৫ হাজার ৬৮১ কোটি টাকায়। যা আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৪ লাখ ২১ হাজার ১০৬ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে ৫ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা।

এদিকে বিগত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ৬১ দশমিক ৬৩ পয়েন্ট বা ১ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমেছিল ৯ দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্ট বা দশমিক ১৬ শতাংশ।

অপর দুটি মূল্যসূচকের মধ্যে গত সপ্তাহে ডিএসই-৩০ আগের সপ্তাহের তুলনায় কমেছে ২৭ দশমিক শূন্য ১ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩৩ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি বেড়েছিল ১৮ দশমিক ১৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৯০ শতাংশ।

আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক কমেছে ১১ দশমিক ৯৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৯০ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি বেড়েছিল ১২ দশমিক ৮০ পয়েন্ট বা দশমিক ৯৮ শতাংশ।
গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৪৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ১৫৫টির দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে কমেছে ১৭৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬টির দাম।

এদিকে গত সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৮১৫ কোটি ৬৬ লাখ টাকার শেয়ার। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয়েছিল ৮২৩ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন কমেছে ৮ কোটি ২৯ লাখ টাকা বা ১ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ।

আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৪ হাজার ৭৮ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৪ হাজার ১১৯ কোটি ৭৫ লাখ টাকার শেয়ার। সে হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে ৪১ কোটি ৪০ লাখ টাকা বা ১ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ।

গত সপ্তাহে লেনদেন হওয়া মোট শেয়ারের ৮৮ দশমিক ৯০ শতাংশই ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির। বাকি শেয়ারের ৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ ‘বি’ ক্যাটাগরিভুক্ত, ২ দশমিক ৫১ শতাংশ ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত এবং ১ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ ‘জেড’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ার।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অংকে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ফরচুন সুজের শেয়ার। কোম্পানিটির মোট ২৪১ কোটি ১৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে মোট লেনদেনের ৫ দশমিক ৯১ শতাংশ।

এ সময় দ্বিতীয় স্থানে থাকা বাংলাদেশ ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৩২ কোটি ৯৭ লাখ টাকার। যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের ৫ দশমিক ৭১ শতাংশ। ১৪৪ কোটি ৩৫ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মুন্নু সিরামিক।

লেনদেনে এরপরে রয়েছে- সাবমেরিন কেবলস, লিগাসি ফুটওয়্যার, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, মুন্নু জুট স্টাফলার্স, নূরানী ডাইং, গ্রামীণফোন এবং জেনেক্স ইনফোসিস।

Print Friendly, PDF & Email